ফিকশন  | অনুগল্প

মুখোমুখি ছায়া-কায়া । মোজাফফর হোসেন

ছায়াকথন

স্টেশনে বসে আছি ঠায়। ট্রেন আসে, আবার চলেও যায়। বুক পকেটের টিকিট শরীরের ভাপে ভিজে জবুথবু। কেউ আসবার কথা নয়। আমি ফিরে যাবো কারো কাছে, এই শহরে এমন কেউ নেই আর। কাউকে পাঠাবো না ভেবে যে চিঠিখানা লিখেছিলাম, দলা পাকিয়ে ছুঁড়ে ফেলেছি পরিত্যক্ত এক পুকুরে। আর বালিকা বারবনিতার মধ্যগগণে চুমু খেয়ে উঠে এসেছি এই ভরদুপুরে, চুপিসারে। এর বেশি কিছুই রেখে যাচ্ছি না এই শহরে।
আরও একবার ভালো করে দেখে নিতে চেষ্টা করি শরীরের প্রতিটা ভাঁজে—হাত গলিয়ে পড়ে শূন্যে। এদিক ওদিক ভালো করে দেখি—আমি কারো ছায়া, একাকী অপেক্ষমাণ। আমার অস্পষ্ট অস্তিত্ব চোখে পড়ছে না কারো। স্টেশনের প্রতিটা দেহের সঙ্গে মিলিয়ে দেখলাম নিজেকে। বুঝলাম আমাকে রেখেই ফিরে গেছে সে, অন্য কোনও ছায়ার সন্ধানে।

বিমূর্ত আমি মূর্ত হওয়ার সন্ধানে খুঁজে ফিরি শরীর। সাড়ে পাঁচ ফিট, ছিপছিপে গড়ন—একটু এদিক-ওদিক হলেও ক্ষতি নেই, কে কার ছায়া মেপে দেখে! শরীর বড় দরকার, শরীর ছাড়া ইচ্ছেশক্তি বড্ড অকেজো এখানে।

কায়াকথন

ট্রেন থেকে নেমেই হাঁটা দিই রাজপথের আইল ধরে। সূর্য তখন ডুবুডুবু। ফাঁকা রাস্তায় পিছন ফিরে দেখি, ছায়াটি নেই সঙ্গে। কী সর্বনাশ! দ্রুত ছুটে যাই স্টেশনে। তন্ন তন্ন করে খুঁজি তাকে শত শত মানুষের ভিড়ে। কোনও ছায়াই ঠিক মেলে না—না আকারে, না প্রকারে!
ফিরতি ট্রেনে ফিরে গেলাম ফেলে আসা শহরে। রাস্তায় অলিতে-গলিতে ছায়ার সন্ধানে। চলতি পথে প্রতিটি ছায়ার সাথে মিলিয়ে দেখলাম নিজেকে। এখন বুঝতে পারছি, ওকে চিনে রাখবার খুব দরকার ছিল।
শেষ পর্যন্ত না পেয়ে জনসমুদ্রের মাঝখান থেকে অন্য একজনের ছায়া নিয়ে সটকে এসেছি নীরবে। এখন আমি ওকে চোখে চোখে রাখি। সূর্যের নীচে কিংবা আলোর বিপরীতে দাঁড়িয়ে পরখ করি ঘনঘন। মাঝে মধ্যে কথাও বলি ওর সঙ্গে। অন্যের ছায়াকে নিজের করার চেষ্টায় এখন কেটে যাচ্ছে দিনকাল।

ছায়া-কায়া দ্বন্দ্ব

লোকটি (যার ছায়া ছায়া-হারানো লোকটি ছিনতাই করেছিল) এতদিনে নিশ্চয় সে ছিনতাই করেছে অন্য কারো ছায়া। তারপর সেই লোকটি আর একজনের। অতঃপর ঐ লোকটি অন্য কারো; কিংবা আপনার…! এইভাবে শুরু হয়েছে ছায়া ছিনতাইয়ের কাহিনি। আজকাল আলোর নিচে ছায়াসমেত কায়া দেখলেই মনে হয়—আপনার ছায়াটি আসলেই আপনার তো?

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





মন্তব্য করুন

আলোচনায় অংশগ্রহণ করতে নিচের মন্তব্য-ফর্ম ব্যবহার করুন করুন: